Templates by BIGtheme NET

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গে হরতাল

পশ্চিমবঙ্গে সদ্য সমাপ্ত পৌর নির্বাচনে ক্ষমতাসীন তৃণমূল কংগ্রেস ব্যাপক কারচুপি আর সন্ত্রাস চালিয়েছে ,এই অভিযোগে বৃহস্পতিবার সেখানে ধর্মঘট ডেকেছে বিরোধীরা। খবর বিবিসি বাংলা।

রাজনৈতিকভাবে দুই মেরুতে থাকা বামপন্থী আর বি জে পি – দুই পক্ষই পৃথক ধর্মঘট করবে কাল। ধর্মঘটকে সমর্থন করছে কংগ্রেসও। অন্যদিকে মমতা ব্যানার্জী বিরোধীদের এই ধর্মঘট ব্যর্থ করতে তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস আর রাজ্য প্রশাসন দুটোকেই ব্যবহার করার কথা ঘোষণা করেছেন।

বিরোধীদলগুলো ভোট গ্রহণের দিন থেকেই অভিযোগ তুলছিল যে কলকাতাসহ রাজ্যের ৯২টি শহরে তৃণমূল কংগ্রেস ব্যাপক সহিংসতা আর কারচুপি চালিয়েছে। মঙ্গলবার যে ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে, তাতে দেখা গেছে তৃণমূল কংগ্রেস কলকাতাসহ সিংহভাগ পৌরসভায় জয়লাভ করেছে।

কিন্তু গণনার আগেই বিরোধীদলগুলো বুঝে গিয়েছিল যে ফলাফল কী হতে চলেছে, তাই বৃহস্পতিবার রাজ্যে সাধারণ ধর্মঘট ডেকেছে সব বিরোধীদলগুলো।

রাজনৈতিকভাবে সম্পূর্ণ বিপরীত মেরুতে অবস্থান করে বামফ্রন্ট আর বি জে পি। কিন্তু প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কারচুপির অভিযোগ এই দুই মেরুকে এক করে দিয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূল দলের প্রধান মমতা ব্যানার্জী ধর্মঘটকে প্রতিহত করার জন্য দলকে নির্দেশ দিয়েছেন রাস্তায় ধর্মঘটের বিরুদ্ধে প্রচার চালাতে।

আর প্রশাসন নির্দেশিকা জারি করে কার্যত হুমকি দিয়েছে যে সরকারী কর্মীরা আগামীকাল গরহাজির হলে বেতন তো কাটা যাবেই, সঙ্গে চাকরী জীবনেও ছেদ পড়বে।

শুধু যে বিপরীত মেরুতে থাকা রাজনৈতিক দলগুলো কথিত নির্বাচনী কারচুপির ইস্যুতে একই অবস্থান নিচ্ছে, তা নয়। যে সব সংবাদমাধ্যম চিরকাল বনধ বা ধর্মঘটের সংস্কৃতির প্রবল বিরোধিতা করে এসেছে, তারাও নিজেদের অবস্থান পাল্টেছে। ধর্মঘটী আর সরকারী দলের নেতা কর্মীরা কাল রাস্তায় নামার কথা ঘোষণা করায় গণ্ডগোলের আশঙ্কা করছেন অনেক সাধারণ মানুষ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

teletalk

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful