Templates by BIGtheme NET

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে অগ্নিকাণ্ডে ৮টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই

জহিরুল ইসলাম টিটু, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর।।

শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার উদমারা এলাকার সর্দার স্টেশন বাজারে এ ঘটনা ঘটে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে সূত্রপাত হওয়া আগুনে ত্রিশ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।
ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- আবদুল আজিজের খাবার হোটেল, আহসান উল্লাহ ও আহম্মদ আলীর ২টি স্টেশনারী, সালাহ উদ্দিন ও আরিফ হোসেনের ২টি ফার্মেসী, ইসমাইল গাজীর মুদি দোকান, শরীফ হোসেনের ফলের দোকান ও জুনাইদের মোবাইল সার্ভিসিং দোকান।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী আরিফ হোসেন জানান, গতকাল রাতে ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যান। হঠাৎ ভোর রাতে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর ত্রিশ লাখ টাকার অধিক মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।
অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে রায়পুর উপজেলা ষ্টেশনের ফায়ারকর্মী আনোয়ার হোসেন জানান, ঘটনাস্থল পৌঁছানোর আগেই স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রেণে নিয়ে আসেন। তবে অগ্নিকাণ্ডে ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।
এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিন চৌধুরী। এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের ধৈর্য ধরার ও পুনরায় ব্যবসা চালুর পরামর্শ দিয়েছেন। পাশাপাশি আর্থিক সহযোগীতা করার আশ্বাস দিয়েছেন। তবে তিনি মনে করেন ব্যবসায়ীরা সতর্ক হলে এমন দুর্ঘটনা হতো না।
লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে অগ্নিকাণ্ডে ৮টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পুড়ে ছাই হয়ে যায়। শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার উদমারা এলাকার সর্দার স্টেশন বাজারে এ ঘটনা ঘটে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে সূত্রপাত হওয়া আগুনে ত্রিশ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি ব্যবসায়ীদের।
ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- আবদুল আজিজের খাবার হোটেল, আহসান উল্লাহ ও আহম্মদ আলীর ২টি স্টেশনারী, সালাহ উদ্দিন ও আরিফ হোসেনের ২টি ফার্মেসী, ইসমাইল গাজীর মুদি দোকান, শরীফ হোসেনের ফলের দোকান ও জুনাইদের মোবাইল সার্ভিসিং দোকান।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ী আরিফ হোসেন জানান, গতকাল রাতে ব্যবসায়ীরা দোকান বন্ধ করে বাড়িতে চলে যান। হঠাৎ ভোর রাতে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। পরে স্থানীয়দের সহযোগীতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। অগ্নিকাণ্ডে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর ত্রিশ লাখ টাকার অধিক মালামাল ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।
অগ্নিকাণ্ডের বিষয়ে রায়পুর উপজেলা ষ্টেশনের ফায়ারকর্মী আনোয়ার হোসেন জানান, ঘটনাস্থল পৌঁছানোর আগেই স্থানীয়রা আগুন নিয়ন্ত্রেণে নিয়ে আসেন। তবে অগ্নিকাণ্ডে ৮ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।
এদিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাবরিন চৌধুরী। এ ঘটনায় দুঃখপ্রকাশ করে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীদের ধৈর্য ধরার ও পুনরায় ব্যবসা চালুর পরামর্শ দিয়েছেন। পাশাপাশি আর্থিক সহযোগীতা করার আশ্বাস দিয়েছেন। তবে তিনি মনে করেন ব্যবসায়ীরা সতর্ক হলে এমন দুর্ঘটনা হতো না।

teletalk

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful